‘ঘোঁরার জাগি থকা দৌর’ কাব্যগ্রন্থের দ্বিতীয় সংস্করণের মোড়ক উন্মোচন

0
156
কবি আসাদুল ইসলামের অসমীয় ভাষায় অনুবাদকৃত নিদ্রামগ্ন ‘ঘোঁরার জাগি থকা দৌর’ কাব্যগ্রন্থের দ্বিতীয় সংস্করণের মোড়ক উন্মোচিত হলো সংস্কৃতিপ্রেমীদের সম্মিলনে

নিউজ ডেস্ক: ১০ এপ্রিল বিকেলের বাতাসে ছিল বসন্তের বিদায়ী সুরের মগ্ন মাধুরিমা। সেই মাধুরিমা কবিতায় উদযাপনে একদল সংস্কৃতিপ্রেমী মিলিত হয়েছিল বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির সেমিনার রুমে। আসামের ভিকি পাবলিশার্স প্রকাশ করেছে বাংলাদেশের কবি আসাদুল ইসলামের কবিতার অসমীয় অনুবাদের গ্রন্থ ‘নিদ্রামগ্ন ঘোঁরার জাগি থকা দৌর’। বইটির দ্বিতীয় সংস্করণের মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে তারা একত্রিত হয়েছিল।

অনুষ্ঠানের শুরুতে কবি আসাদুল ইসলাম উপস্থিত সকলকে স্বাগত জানিয়ে শুভেচ্ছা প্রদান করেন। মোড়ক উন্মোচনের মূল পর্বে সভাপতিত্ব করেন ভিকি পাবলিশার্স আসামের কর্ণধর ড. সৌমেন ভারতীয়া। মূল পর্বের প্রারম্ভে প্রকাশিত বই থেকে একটি বাংলা কবিতা পাঠ করে শোনান ম্যাড থেটারের প্রধান নির্বাহী ও আবৃত্তি শিল্পী সোনিয়া হাসান। এরপর একে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার প্রাপ্ত পরিচালক মুরাদ পারভেজ, বিশিষ্ট কবি ও সাহিত্য সম্পাদক ইসমাত শিল্পী, কণ্ঠশিল্পী গুলবাহার, বিশিষ্ট নাট্যজন ড. আইরিন পারভীন লোপা, নাট্যজন সুদীপ চক্রবর্তী, নাট্যজন আকতারুজ্জামান, নাট্যজন আহমেদ গিয়াস, ব্যতিক্রম মাসদো আসামের পরিচালক বিধান দাশগুপ্ত।

সবশেষে সভাপতির বক্তব্য রাখেন ভিকি পাবলিশার্সের কর্ণধার ও ব্যতিক্রম মাসদো আসামের প্রধান ড. সৌমেন ভারতীয়া। সভাপতি তার বক্তব্যে দুই দেশের মানুষের সম্প্রীতি ও সৌহার্দের ক্ষেত্রে সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক বিনিময়ের উপর জোর দিয়ে বলেন ভিকি পাবলিশার্স বাংলাদেশের কবির কবিতার অসমীয় অনুবাদের মধ্য দিয়ে যে যাত্রা শুরু করেছে সেটিকে আরও বিস্তৃত পরিসরে তারা নিয়ে যেতে চায়। বাংলাদেশের সাহিত্যিকদের ভালো ভালো কাজগুলো আসামের মানুষের কাছে অসমীয় ভাষায় পৌছে দিতে চায়। এতে করে বরাক উপতক্যায় ঘেরা আসামের মানুষেরা বাংলা ভাষায় রচিত শ্রেষ্ঠ সাহিত্যের রসকে নিজের ভাষায় আস্বাদনে সমর্থ হবে। ফলে বাংলাদেশ সম্পর্কে আসামের মানুষের মনে নতুন একটা্ দৃষ্টিভঙ্গী তৈরি হবে যা দুদেশের দীর্ঘদিনের বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ককে আরও তরাণ্বিত করবে, আরও বিশ্বস্ত করবে। সভাপতির বক্তব্য শেষে উপস্থিত সকলে মিলে ‘নিদ্রামগ্ন ঘোঁরার জাগি থকা দৌর’ কাব্যগ্রন্থের দ্বিতীয় সংস্করণের মোড়ক উন্মোচন করেন। মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানটি যৌথভাবে আয়োজন করে ঢাকার ম্যাড থেটার আর আসামের ভিকি পাবলিশার্স ও ব্যতিক্রম মাসদো। বইটি বাংলা ভাষা থেকে অসমীয় ভাষায় অনুবাদ সম্পন্ন করেছেন নিশা ডেকা।

কাব্যগ্রন্থের দ্বিতীয় সংস্করণের প্রচ্ছদ

উল্লেখ্য যে, বাংলাদেশের কোনো লেখকের বাংলা ভাষায় লিখিত বই, প্রথমবার আসাম থেকে অসমীয় অনুবাদে প্রকাশ হয় ২০১৭ সনে। বইটির নাম ‘ঘুম ঘোড়ার জেগে থাকা দৌড়’, এটি বাংলাদেশের নাট্যকার ও কবি আসাদুল ইসলামের ৭ম কাব্যগ্রন্থ। অসমীয় ভাষায় কাব্যগ্রন্থটির নাম দাঁড়িয়েছে ‘নিদ্রামগ্ন ঘোঁরার জাগি থকা দৌর’। ২০১৭ সনের ২৯ অক্টোবর আসামের রাজধানী গৌহাটির একটি রেস্টুরেন্টের জনাকীর্ণ অনুষ্ঠানে বইটির মোড়ক উন্মোচন করেন বিশিষ্ট সঙ্গীত শিল্পী নচিকেতা। এই দুই বছরের মধ্যে ২০১৯ সনের ১০ এপ্রিল বইটির দ্বিতীয় সংস্করণ হলো বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির সেমিনার রুমে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here