কারিতাসের উদ্যোগে ফোষ্টার প্যারেন্ট/ অভিভাবক চুক্তিপত্র স্বাক্ষর

0
350


মোহাম্মদ মাহবুব উদ্দিন:

কারিতাস ঢাকা অঞ্চলে বাস্তবায়িত কারিতাস আলোকিত শিশু প্রকল্পের গাবতলী ডিআইসির মেয়ে পথশিশু রাজিয়া, বয়স-৬ বছর, (কোড নং-৬২৩) কে ফোষ্টার প্যারেন্ট/ অভিভাবক ( রাজিয়ার দাদী) ফাতেমা বেগমের নিকট দায়িত্ব হস্তান্তর করা হয়েছে। রাজিয়াকে তার দাদীর নিকট দায়িত্ব অর্পন উপলক্ষে অদ্য-১৮/০৬/২৩ খ্রিঃ তারিখে কারিতাস আলোকিত শিশু প্রকল্পের- গাবতলী ডিআইসিতে ফোষ্টার প্যারেন্ট/ অভিভাবক চুক্তিপত্র স্বাক্ষর সম্পাদন করা হয়।

উক্ত অনুষ্ঠানে কারিতাস ঢাকা অঞ্চলের পক্ষে আঞ্চলিক পরিচালক জ্যোতি গমেজ এবং রাজিয়ার পক্ষে তার দাদী ফাতেমা বেগম চুক্তিপত্রে স্বাক্ষর করেন। অনুষ্ঠানে আর উপস্থিত ছিলেন- মিরপুর প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ও শিশু সুরক্ষা কমিটির সদস্য মোহাম্মদ মাহবুব উদ্দিন সাজ, ৯ নং ওয়ার্ড সচিব টি. এল. রবিদাস, কারিতাস ঢাকা অঞ্চলের কর্মসূচি কর্মকর্তা (ইসিডি) কামরুন নাহার, সাংবাদিক মিজানুর রহমান, বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশন দারুস সালাম থানার সভাপতি মিজানুর রহমান বাপ্পি, শিশু সুরক্ষা কমিটির সদস্য লাভলী রেজা, অনু দাশ, কামরুল হাসান, ডিআইসি-ইন-চার্জ দেবব্রত মজুমদার, আউটরীচ অফিসার লিজা নির্মলা কস্তা প্রমূখ।

পথশিশু রাজিয়া ও তার ২ বোন এবং এক ভাইসহ তার মাদকাসক্ত বাবার সাথে রাস্তায় ভাসমান অবস্থায় বসবাস করে, তার মা তাদের ছেড়ে নিরুদ্দেশ। তার বাবা তাদের ফেলে রেখে বিভিন্ন জায়গায় চলে যায় এবং তাদের লালন পালন করতে অসম্মতি প্রকাশ করে। কারিতাস আলোকিত শিশু প্রকল্প থেকে রাজিয়ার দাদীর সন্ধান করে ফোষ্টার প্যারেন্ট/ অভিভাবক হিসাবে দায়িত্ব পালনের প্রস্তাব দিলে তিনি রাজি হয় এবং রাজিয়ার বাবাও এতে সম্মতি প্রকাশ করে। রাজিয়ার দেখাশোনা, খাওয়া দাওয়া , পড়াশোনা এবং সুরক্ষা শর্ত সাপেক্ষে প্রতিমাসে ৭,০০০/- (সাত হাজার টাকা) করে নগদ প্রদান করা হবে। চুক্তিপত্র স্বাক্ষর শেষে জুন,২৩ খ্রিঃ মাসের ৭,০০০/- নগদে প্রদান করা হয়।

উক্ত অনুষ্ঠানে আঞ্চলিক পরিচালক জ্যোতি গমেজ বলেন- আজকের চুক্তিপত্র অনুষ্ঠানটি কারিতাসের জন্য একটি নতুন সুচনা। আশা-ভালবাসার মাধ্যমে শিশুটি জীবনে নতুন যাত্রা শুরু হয়েছে এবং পরিবারের আশা-ভালবাসার মাধ্যমে সুরক্ষা নিশ্চিত হয়েছে। তিনি আরো বলেন কারিতাসের এমন উদ্যোগ গ্রহণের জন্য সমাজের বিভিন্ন পেশা-শ্রেনীর ব্যক্তিদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানান। কারিতাসের এমন ব্যতিক্রম উদ্যোগটি বিপদাপন্ন পথশিশুদের মৌলিক অধিকার ও সুরক্ষিত হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here