নটরডেম কলেজের ৭৫ বছর পূর্তির তিনদিনের জমকালো অনুষ্ঠানের মধ্যদিয়ে পর্দা নামলো।

0
187

কিশোর ডি কস্তা :

নটরডেম কলেজের ৭৫ বছর পূর্তি উৎসবের ২৭শে মার্চ ছিল নটরডেম কলেজের ৭৫ বছরের পূর্তি উপলক্ষ্যে তিন দিনব্যাপী উৎসবের তৃতীয় তথা শেষ দিন। এদিনটি শুরু হয় পবিত্র খ্রিষ্টযাগ, বিশেষ প্রার্থনা ও খ্রিষ্টপ্রসাদ বিতরণের মধ্য দিয়ে। এই খ্রিষ্টযাগে উপস্থিত ছিলেন শ্রদ্ধেয় ফাদার-ব্রাদার-সিস্টার তথা মণ্ডলের সদস্যবৃন্দ ও খ্রিষ্টভক্তগণ। ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্য বজায় রেখে এই আয়োজনটি বিশেষ প্রার্থনা, যিশুর বাণী-উচ্চারণ ও ধন্যবাদ জ্ঞাপনের মধ্য দিয়ে শেষ হয়।

এই আয়োজনের পরের পর্বটি শুরু হয় জাতীয়সংগীত ও উদ্বোধনী নৃত্যের মধ্য দিয়ে। এই পর্বে মঞ্চে আসন গস্খহণ করেন প্রধান অতিথি হিসেবে মহামান্য কার্ডিনাল প্যাট্রিকডি রোজারিও, সিএসসি, ঢাকা ডায়োসিসের আর্চবিশপ শ্রদ্ধেয় বিজয় এন ডি’ক্রুজ, ওএমআই, হলিক্রস উপাসকমণ্ডলীর সুপিরিয়র জেনারেল ব্রাদার পল বেদনারর্জিক, সিএসসি, বাংলাদেশের হলিক্রস ফাদারের প্রভিন্সিয়াল সুপিরিয়র ড. ফাদার জর্জ কমল রোজারিও, সিএসসি ও উৎসব-বক্তা হিসেবে মুক্তিযোদ্ধা, মানবাধিকারকর্মী ও সাবেক সংসদ সদস্য আরমা দত্ত; সভাপতিত্ব করেন নটর ডেম কলেজের সম্মাননীয় অধ্যক্ষ ড. ফাদার হেমন্ত পিউস রোজারিও, সিএসসি।

স্বাগত-বক্তৃতায় ড. ফাদার হেমন্ত পিউস রোজারিও, সিএসসি গত দুইদিনের কার্যক্রম তুলে ধরেন; তিনি বলেন, নটরডেম কলেজের লক্ষ্য শুধু পাঠ্যবই অন্তর্ভুক্ত পাঠদানই নয়, একইসঙ্গে নৈতিক শিক্ষার প্রতিও জোর দেওয়া হয়। প্রধান অতিথি শ্রদ্ধেয় কার্ডিনাল প্যাট্রিক ডি রোজারিও, সিএসসি ‘স্থানীয় মণ্ডলীর উন্নয়নে নটর ডেম কলেজের অবদান’ বিষয়ে কথা বলেন। এছাড়াও বক্তৃতা করেন শ্রদ্ধেয় আর্চবিশপ বিজয় এন ডি’ক্রুজ, ওএমআই, প্রভিন্সিয়াল সুপিরিয়র ড. ফাদার জর্জ কমল রোজারিও, সিএসসি, সুপিরিয়র জেনারেল ব্রাদার পল বেদনার্জিক, সিএসসি, নটর ডেম বিশ্ববিদ্যালয়েরস উপাচার্য ড. ফাদার প্যাট্রিক ডানিয়েল গাফনি, সিএসসি। তৃতীয় দিনের
উৎসব-বক্তা আরমা দত্ত বাংলাদেশের শিক্ষাক্ষেত্রে নটরডেম কলেজের অবদানের কথা উল্লেখ করে এই প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে যুক্ত সবাইকে ধন্যবাদ ও অভিনন্দন জানান।

অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত সম্মানিত অতিথিবৃন্দের হাতে স্মারক-সম্মাননা তুলে দেন প্রতিষ্ঠানের অধ্যক্ষ ড. ফাদার হেমন্তপিউস রোজারিও,
সিএসসি। এর পরে ছিল সাংস্কৃতিক পর্ব, যেখানে অংশগ্রহণ করে ঢাকার পার্শ্ববর্তী অঞ্চলের স্কুলের শিক্ষার্থরা। সাংস্কৃতিক পর্বের পরে ছিল মধ্যাহ্নভোজের বিরতি।

মধ্যাহ্নভোজের পরে পরবর্তী আয়োজন শুরু হয় বিকাল ৩:৩০ থেকে। আবারও মঞ্চ সরব হয়ে ওঠে। বিকেলের এই পর্ব শুরু হয়। জাতীয়সংগীত ও উৎসব-সংগীতের মধ্য দিয়ে। এই পর্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন হলিক্রস উপাসকমণ্ডলীর সুপিরিয়র জেনারেল ব্রাদার পল বেদনার্জিক, সিএসসি। উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশের পর্বতারোহী, এভারেস্টজয়ী এম এ মুহিত। আরও উপস্থিত ছিলেন নটর ডেম কলেজের পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান ও ঢাকা ডায়োসিসের শ্রদ্ধেয় আর্চবিশপ বিজয় এন ডি’ক্রুজ, ওএমআই । উৎসব-বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় উপাচার্য ড. মো. মশিউর রহমান; সভাপতিত্ব করেন অধ্যক্ষ ড.ফাদার হেমন্ত পিউস রোজারিও, সিএসসি।অধ্যাপক ড. মো. মশিউর রহমান

উল্লেখ করেন তাঁর জীবনে নটর ডেম কলেজের শিক্ষকদের অবদানের কথা। পর্বতারোহী এম এ মুহিত তাঁর বক্তৃতায় নটর ডেম কলেজে তাঁর ছাত্রজীবনের উজ্জ্বল স্মৃতিখণ্ড ও পর্বতারোহরণের দুঃসাহসিক গল্প শোনান। এরপরে ছিল উৎসব-স্মারক প্রদান করার পালা। নটর ডেম কলেজের যে শিক্ষার্থীরা বাংলাদেশের বিভিন্ন ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখেছেন,তাঁদের হাতে উৎসব-স্মারক তুলে দেন প্রতিষ্ঠানের অধ্যক্ষ ড. ফাদার হেমন্ত পিউস রোজারিও,
সিএসসি। তিন দিনব্যাপী উৎসবের আয়োজন পৌঁছায় শেষ পর্যায়ে। ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন ব্রি. জেনারেল (অবসরপ্রাপ্ত) মো. রেফায়েত উল্লাহ।

বিকেলের সাংস্কৃতিক পর্বে ছিল নটর ডেম কলেজে বিভিন্ন ক্লাবের মনোমুগ্ধকর পরিবেশনা। সবশেষে মঞ্চে আসে জনপ্রিয় ব্যান্ড ‘শিরোনামহীন’। এরপরে ছিল নৈশভোজের আয়োজন। অবশেষে বিপুল আনন্দ-উদ্দীপনা-মুখরতার মধ্য দিয়ে যবনিকা ঘঁল নটর ডেম কলেজের ৭৫ বছর পূর্তি উৎসবের তিন দিনব্যাপী মহা-
আয়োজনের। কিন্তু এর রেশ তো শেষ হওয়ার নয়, তা থেকে যাবে প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের স্মরণে-আলাপে-স্বগোক্তিতে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here