কিশোরগঞ্জ উপজেলাকে বাল্যবিবাহ মুক্ত করনের লক্ষ্যে বিশেষ অনুষ্ঠান

0
1380

শুভ কুমার সরকার (কিশোরগঞ্জ,নীলফামারী) প্রতিনিধি :

“আমার গ্রাম আমার দায়িত্ব, শিশুর জীবন হোক বাল‍্য বিবাহ মুক্ত” এই স্লোগানকে সামনে রেখে নীলফামারীর কিশোরগঞ্জ উপজেলাকে বাল‍্য বিবাহ মুক্ত করণের লক্ষে বিশেষ অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে। ঙ্গলবার (২৯ আগস্ট) সকাল ১১ টায় উপজেলা পরিষদের হলরুমে এ অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। কিশোরগঞ্জ এরিয়া প্রোগ্রাম ওয়ার্ল্ড ভিশন বাংলাদেশ’র সহযোগীতায় নীলফামারী জেলা প্রশাসক পঙ্কজ ঘোষ’র সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় মানবাধিকার কমিশন বাংলাদেশের চেয়ারম্যান ড. কামাল উদ্দিন আহমেদ। এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন সেলিম রেজা সার্বক্ষণিক সদস্য জাতীয় মানবাধিকার কমিশন বাংলাদেশ, সুরেশ বার্টলেট ন্যাশনাল ডিরেক্টর ওয়ার্ল্ড ভিশন বাংলাদেশ, আশরাফুল আলম পরিচলক (কমপ্লাইট এন্ড ইনকোয়েরি) জেলা জজ,কাজী আরফান আশিক পরিচালক এডমিন এন্ড ফাইন্যান্স , মোহাম্মদ গাজী সালাউদ্দিন উপ – পরিচালক জাতীয় মানবাধিকার কমিশন বাংলাদেশ, এম রবিউল ইসলাম উপ-পরিচালক মানবাধিকার কমিশন বাংলাদেশ,নুর – ই- আলম সিদ্দিকী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও), চন্দন জেড গমেজ সিনিয়র ডিরেক্টর,অপারেশন,ওয়ার্ল্ড ভিশন বাংলাদেশ প্রমূখ। ওয়ার্ল্ড ভিশন বাংলাদেশ কিশোরগঞ্জ এপির তথ‍্য মতে কিশোরগঞ্জ উপজেলা দীর্ঘদিন ধরে বাল্যবিবাহের সমস্যায় জর্জরিত। ২০১৯ সালে ওয়ার্ল্ড ভিশনের এক জরিপ অনুযায়ী কিশোরগঞ্জে বাল্যবিবাহের হার ছিল ৫৫%. এই সমস্যা থেকে উত্তোরণের জন্য ওয়ার্ল্ড ভিশন বাংলাদেশ “আমার গ্রাম আমার দায়িত্ব, শিশু জীবন হোক বাল্যবিবাহ মুক্ত “এই স্লোগানকে সামনে রেখে পর্যায়ক্রমে একেকটি গ্রামকে বাল‍্যবিবাহ মুক্ত করার কার্যক্রম গ্রহণ করেন।পরবর্তী পর্যায়ে মার্চ ২০২৩ এ কিশোরগঞ্জ উপজেলা কে বাল্যবিবাহ মুক্ত ঘোষণা করার লক্ষ্যে উপজেলা প্রশাসনের সাথে ওয়ার্ল্ড ভিশন বাংলাদেশ এবং ৩২ টি গ্রাম উন্নয়ন কমিটির একটি সমঝোতা স্বাক্ষর চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। গ্রাম পর্যায়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মহোদয়ের নেতৃত্বে উপজেলা প্রশাসনের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা বৃন্দ,পুলিশ কর্মকর্তা সহ উপজেলা চেয়ারম্যান ও জন প্রতিনিধিদের সচেতনামূলক কার্যক্রমের ফলে বাল্যবিবাহ মুক্ত কিশোরগঞ্জ উপজেলা গঠনের উদ্যোগ জনগণের মনে ব্যাপক ভাবে সাড়া জাগায়। উপজেলা নির্বাহী অফিসার নূর -ই-আলম সিদ্দিকীর দিকনির্দেশনায় এবং শিক্ষকদের আন্তরিকতা আন্তরিক প্রচেষ্টায় উপজেলা সকল মাধ্যমিক পর্যায়ের ৪১ টি বিদ্যালয় এবং ২৫ টি মাদ্রাসার ২৯ হাজার শিক্ষার্থীর মাঝে সচেতনতা তৈরি হয়েছে।তাদের নিরলস প্রচেষ্টার ফলে প্রতিটি গ্রামে জনসচেতনতা বৃদ্ধি পেয়েছে। ওয়ার্ল্ড ভিশন কর্তৃক তাদের কর্ম এলাকার ২০ গ্রামে তালিকা ভুক্ত ১২-১৮ বছরের মেয়ে শিশু রয়েছে এমন ৪৫৮৫ টি পরিবারে জরিপের ফলাফলে দেখা যায়,২০ টি গ্রামের মধ‍্যে ৮ টি গ্রামে বিগত এক বছরে কোন বাল‍্যবিয়ে সংঘঠিত হয়নি। অবশ‍্য অবশিষ্ট ১২ টি গ্রামে বাল‍্য বিয়ের হার ১০.৯৭% ।পরিবর্তনের জন‍্য শুধু আইনের প‍্রয়োগ নয়, এর জন‍্য প্রয়োজন উপযুক্ত শিক্ষা, সহানুভূতি ও সচেতনতা।সরকারের পাশাপাশি সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্টা অব‍্যহত থাকলে বাল‍্যবিবাহ নির্মূল করা এবং সমাজে ইতিবাচক পরিবর্তন আনয়ন করা সম্ভব বলে দাবী করেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here