নতুন রুপে টিভি সিরিজে আসছে হ্যারি পটার

0
496

আতিকুর রাহিম: বিশ্বজুড়ে অগণিত সিনেমাপ্রেমীর কাছে প্রিয় নাম ‘হ্যারি পটার’। জে কে রাউলিং এর উপন্যাস অবলম্বনে সিরিজ আকারে নির্মিত এই চলচ্চিত্র দেখে মুগ্ধ হয়নি এমন মানুষ হয়তো খুঁজেই পাওয়া যাবে না। কৈশোর পেরিয়ে প্রাপ্তবয়স্ক হওয়ার পরেও হগওয়ার্টস, হ্যারি পটার ও তার বন্ধুদের জাদুর দুনিয়ার দেখে আনন্দ পান দর্শকরা। তাদের জন্যই সুখবর হলো, হ্যারি পটার আবারও ফিরছে, তবে এবার ছোট পর্দায়- টিভি সিরিজ আকারে।

সিনেমার পর এবার টিভি সিরিজ হয়ে আসছে হ্যারি পটার। ব্রিটিশ লেখিকা জেকে রাউলিংয়ের লেখা বইয়ের ওপর ভিত্তি করেই বানানো হচ্ছে এ সিরিজ। জানা গেছে, রাউলিং লিখিত হ্যারি পটারের সাতটি বইকে কেন্দ্র করে এ টিভি সিরিজের সিজনগুলো বানানো হবে। বিশ্বের সবচেয়ে বেশি বিক্রিত বইয়ের মধ্যে অন্যতম হ্যারি পটার। বিশ্বজুড়ে ৬০ কোটি কপির বেশি বিক্রি হয়েছে এ সিরিজ। এর আগে, হ্যারিপটার নিয়ে সিনেমা নির্মাণ করা হয়েছে। যেখানে হ্যারি পটার চরিত্রে অভিনয় করেছেন ড্যানিয়েল র‍্যাডক্লিফ।

প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান ওয়ার্নার ব্রো’স এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, নতুন প্রজন্মের জন্যই এ টিভি সিরিজ বানানো হবে। যেখানে হ্যারি পটার হাজির হবে নতুন রূপে। দ্য গার্ডিয়ান সূত্রে জানা গেছে, হ্যারি পটার টিভি সিরিজ ‘ম্যাক্স’-এ প্রচারিত হবে; যে চ্যানেলটি এতদিন এইচবিও ম্যাক্স নামে পরিচিত ছিল।

জে কে রাউলিং এর ১৯৯৭ থেকে ২০০৭ সালের মধ্যে প্রকাশিত হ্যারি পটারের সাতটি বই অবলম্বনে ‘দশকব্যাপী দীর্ঘ’ এই সিরিজ নির্মিত হবে। যে সিনেমাগুলোর জন্য হ্যারি পটার ফ্র্যাঞ্চাইজি বিখ্যাত, সেরকম একই যত্ন নিয়ে, একই রকম চমৎকার লোকেশনে টিভি সিরিজটি নির্মিত হবে বলে এক বিবৃতিতে জানিয়েছে নতুন প্রতিষ্ঠিত ‘ম্যাক্স’।

তবে এবারের হ্যারি পটার সিরিজে দেখা মিলবে না পুরনো হ্যারি পটার ড্যানিয়েল র‍্যাডক্লিফ বা হার্মিওনি গ্রেঞ্জার রূপে এমা ওয়াটসনের। ম্যাক্স জানিয়েছে, “এই টিভি সিরিজে নতুন অভিনেতাদের নেওয়া হবে যাতে করে নতুন প্রজন্মের মাঝেও হ্যারি পটার নিয়ে নতুন উন্মাদনা তৈরি হয়, যেন মজাদার সব চরিত্র, লোকেশন যা ২৫ বছর ধরে হ্যারি পটার ভক্তরা ভালোবেসে এসেছে, সেই সবই দর্শকরা যেন আবার উপভোগ করতে পারেন।”

আরও বলা হয়, “সিরিজের প্রতিটি সিজনই মূল বই অবলম্বনে নির্মিত হবে এবং হ্যারি পটার ও তার রোমাঞ্চকর অ্যাডভেঞ্চারগুলোকে বিশ্বজুড়ে নতুন দর্শকদের সামনে তুলে ধরা হবে। একই সাথে হ্যারি পটারের আগের চলচ্চিত্রগুলোও কালজয়ী হয়ে থাকবে; সিনেমাগুলোই এই ফ্র্যাঞ্চাইজির কেন্দ্রবিন্দুতে থাকবে এবং দর্শকদের মণিকোঠায় রয়ে যাবে ঠিক আগের মতোই।”

নিল ব্লেয়ার এবং রুথ কেনলি-লেটসের সঙ্গে সিরিজের এক্সিকিউটিভ-প্রডিউসের দায়িত্বেও থাকছেন জে কে রাউলিং। এছাড়াও, সিনেমাগুলোর এক্সিকিউটিভ প্রডিউসার হিসেবে দায়িত্ব পালন করা ডেভিড হেইম্যানের নামও রয়েছে এই তালিকায়।

২০২১ সাল থেকে হ্যারি পটার টিভি সিরিজ নির্মাণ নিয়ে কাজ শুরু হয়, যা দর্শক-ভক্তদের কাছ থেকে মিশ্র প্রতিক্রিয়া লাভ করেছে। যদিও, হ্যারি পটারের বই, সিনেমা, থিয়েটার শো, ভিডিও গেমস- এর বাজারমূল্য সব মিলিয়ে প্রায় ২৫ বিলিয়ন ডলার; কিন্তু জে কে রাউলিং এর ট্রান্সজেন্ডার বিতর্কের ফলে কিছু দর্শক এই সিরিজ থেকে মুখ ফিরিয়ে নিয়েছেন।

হ্যারি পটারের প্রথম ফিচার ফিল্ম নির্মাণের ২০ বছর পূর্তি উদযাপনে অনুপস্থিত ছিলেন জে কে রাউলিং। হ্যারি পটারের প্রধান ত্রয়ী ট্রান্সজেন্ডার নিয়ে রাউলিং মন্তব্যের প্রতিবাদ করেছেন। তবে হ্যারি পটারের সবগুলো ছবি প্রযোজনা করা প্রতিষ্ঠান ওয়ার্নার ব্রোস এর সঙ্গে জে কে রাউলিং এর ভালো সম্পর্ক বজায় রয়েছে।

এইচবিও ও ম্যাক্স কনটেন্ট এর সিইও এবং চেয়ারম্যান ক্যাসি ব্লয়েজ বলেন, “দর্শকদের হগওয়ার্টসকে একদম নতুন রূপে দেখার সুযোগ করে দিতে পেরে আমরা আনন্দিত।” এ প্রসঙ্গে জে কে রাউলিং বলেন, “আমার বইয়ের বিশুদ্ধতা রক্ষার জন্য ম্যাক্স এর অঙ্গীকারই আমার কাছে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ, এবং বই থেকে গৃহীত নতুন সংস্করণ দেখার জন্য আমি মুখিয়ে আছি।” 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here