এশিয়া কাপে তামিমের বদলি নতুন তামিম

0
83

মো.হাছিবুল বাসার:
পিঠের ইনজুরির কারণে আসন্ন এশিয়া কাপে খেলতে পারছেন না তামিম ইকবাল। একই কারণে কিছুদিন আগে ওয়ানডে দলের নেতৃত্বও ছেড়েছেন তামিম। অভিজ্ঞ তামিমের বদলে এশিয়া কাপের দলে সুযোগ পেয়েছেন ২২ বছর বয়সী তরুণ ওপেনার তানজিদ হাসান তামিম। অভিজ্ঞ তামিমের ইনজুরির কারণে দলে একজন ওপেনারকে যেহেতু নিতেই হতো, সেখানটাই সুযোগ পেলেন বেশ ছন্দে থাকা জুনিয়র তামিম। অবশ্য ক্যারিয়ারের শুরুতে নজর কেড়েছিলেন অনূর্ধ্ব-১৯ দলকে বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন বানিয়ে। আইসিসি’র শিরোপা বাংলাদেশে আনতে বড় অবদান রেখেছিলেন এই ওপেনার। তারপর থেকেই তার প্রতি প্রত্যাশার পারদ জমেছে ধীরে ধীরে।

সম্প্রতি শ্রীলঙ্কার মাটিতে হওয়া ইমার্জিং এশিয়া কাপে ছিলেন দারুণ ফর্মে। শ্রীলংকা ‘এ’ দলের বিপক্ষে ৩৯ বলে ৫১, ওমানের বিপক্ষে ৪৯ বলে ৬৮ আর ভারতের বিপক্ষে ৫৬ বলে ৫১ রানের দারুণ তিনটি ইনিংস খেলেন তামিম। ওপেন করতে নেমে তার ব্যাটিংয়ে আগ্রাসী মেজাজ নজরকাড়ে নির্বাচকদের। যদিও ব্যাট হাতে গত মৌসুমটা ভালো কাটেনি তামিমের। লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জের হয়ে ২০২২ সালের প্রিমিয়ার লিগে ৯ ম্যাচ খেলে ৮ ইনিংসে করেছেন মাত্র ১১৯ রান। ব্যাট হাতে আশানুরূপ পারফর্ম করতে না পারার পর পড়েন চোটেও। তবে হতাশা থেকে বের হয়ে আসতে সময় নেননি বেশি। ব্রাদার্স ইউনিয়নের হয়ে এবার প্রিমিয়ার লিগে তানজিদ ১১ ম্যাচ খেলে ২টি সেঞ্চুরি আর একটি ফিফটি করেন। স্ট্রাইক রেট ছিল চোখে পড়ার মতো। প্রায় ৯৩ দশমিক ৩০ রেটে করেছেন ৪৭৪ রান। এরপর শ্রীলংকায় অনুষ্ঠিত হওয়া ইমার্জিং এশিয়া কাপের সুযোগের সঠিক ব্যবহার করলেন। কেবল দলে থাকার জন্যই নয়, দলের অন্যতম সেরা খেলোয়াড়ই হন। ব্যাট হাতে বাংলাদেশের হয়ে সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক হন এই ওপেনার। চার ম্যাচে তিন ফিফটিতে ১১৬ দশমিক ৯৯ স্ট্রাইক রেটে ১৭৯ রান করেছিলেন তিনি। যা আধুনিক ক্রিকেটের সাথে একদম মানানসই।

এশিয়া কাপে তাকে সুযোগ দেয়ার ব্যাপারে প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নু বলেন,‘তামিম আমাদের হাই পারফরম্যান্স ইউনিটে ছিল। তারপর সর্বশেষ ইমার্জিং এশিয়া কাপে দারুণ করেছে। সব মিলিয়ে আমরা মনে করেছি তাকে সুযোগ দেওয়া উচিত।’

ঘরোয়া লিগে এখন পর্যন্ত লিস্ট ‘এ’তে ৪৬ ম্যাচের ৪৫টি ইনিংসে ব্যাট হাতে নেমেছেন তামিম। ২৮ দশমিক ৮৮ গড়, ৮২ দশমিক ৮০ স্ট্রাইকরেটে ব্যাট করেছেন এই ওপেনার। নামের পাশে আছে ৩টি শতক এবং ৭টি অর্ধশতক। ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ ১৪২ রান করা তামিমের মোট রান ১২৭১। ১৪০টি চারের সঙ্গে হাঁকিয়েছেন ৩০টি ছক্কাও। ফার্স্ট ক্লাস ক্রিকেটে এখন পর্যন্ত খেলেছেন ১৮টি ম্যাচ। যেখানে ৪৩ দশমিক ৫৪ গড়ে ১৩৫০ রান নামের পাশে। আছে তিনটি শতক আর ৬টি অর্ধশতকও। ফার্স্ট ক্লাস ক্রিকেটে তামিমের ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ সংগ্রহ ১৪৫। টি-টোয়েন্টিতেও কম যান না এই তরুণ ব্যাটার। মাত্র ২১টি ম্যাচ খেলে ১১০ দশমিক ৬৩ স্ট্রাইকরেটে রান করেছেন ৪৩৭। সর্বোচ্চ ৭৯ রান করা তামিমের ব্যাটিং গড় ২৪ দশমিক ২৭। দুটি অর্ধশতক হাঁকানো তামিমের নামের পাশে আছে ৩২টি চার আর ১৭টি ছক্কা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here